শনিবার ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ Saturday 3rd December 2022

শনিবার ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯

Saturday 3rd December 2022

প্রচ্ছদ প্রতিবেদন

'প্রশাসনের অবহেলায় পঞ্চগড়ে ভয়াবহ নৌ দুর্ঘটনা'

২০২২-০৯-২৮

দৃকনিউজ প্রতিবেদন

   

পঞ্চগড়ের করোতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনার প্রায় তিন দিন হতে চললেও এখনও নিখোঁজদের অনেককে উদ্ধার করতে পারেনি প্রশাসন। রোববার থেকে এখনও পর্যন্ত ৬১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের সংখ্যা এখনও অন্তত ১৯ জন। নদী তীরে অজস্র মানুষ জড়ো হয়েছেন স্বজনের খোঁজে। 

সরেজমিনে উদ্ধার কাজ পরিদর্শন করে দৃকনিউজের স্থানীয় প্রতিবেদক জানান, নৌকাডুবির এই ঘটনায় উদ্ধার কাজে সরকারি উদ্যোগের চেয়ে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরাই বেশি সক্রিয়।
গত ২৫ সেপ্টেম্বর রবিবার শারদীয় দুর্গোৎসবের মহালয়া উপলক্ষে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাট সংলগ্ন করতোয়া নদীতে একদল যাত্রী ইতিহাস প্রসিদ্ধ বদেশ্বরী মন্দিরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করছিলেন। পথে দুপুর আড়াইটার দিকে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। 

প্রতি বছরই উৎসব উপলক্ষে এখানে অনেক যাত্রী নৌকায় করতোয়া নদী পাড়ি দিয়ে থাকেন। এখানে নৌকাগুলো প্রায়ই অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই হয়ে যায়। যাতায়াতের সুব্যবস্থা না থাকায় অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নদী পথ পাড়ি দিতে বাধ্য হন । বিভিন্ন সময় এ ধরনের ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যেতে দেখা যায়। প্রশাসন আগে থেকে বাড়তি নৌযানের বন্দোবস্ত করলে এবং সতর্কতা অবলম্বন  করলে এ দুর্ঘটনা ঘটতো না বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

বাংলাদেশে নৌ-দুর্ঘটনা কোনো নতুন ঘটনা নয়। এক জরিপে দেখা গেছে, ২০২১ সালে ৯০টি নৌ-দুর্ঘটনায় প্রাণ যায় ১৯৮ জন আর নিখোঁজ হন ১৮৬ জন। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ছয় বছরে নৌ-দুর্ঘটনায় মারা গেছে ৩ হাজার ৩৪৫ জন। এতো মৃত্যুর পরেও টনক নড়ছে না প্রশাসনের। প্রশ্ন উঠছে, আর কত মৃত্যুর পর, আর কত স্বজনহারাদের আহারির পর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন?